September 21, 2018

অধিকার বাস্তবায়ন কমিটির কেন্দ্রীয় কমিটি পুনঃগঠিত

ঢাকা ব্যুারো: মানবধিকার সংগঠন অধিকার বাস্তবায়ন কমিটি (অবাক) এর কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যক্রমকে আরও গতিশীল এবং অধিকার বঞ্চিত মানুষের অধিকার বাস্তবায়নের লক্ষে সংগঠনটির সাধারণ সভায় ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কেন্দ্রীয় কমিটি পুন:গঠিত হয়েছে ।

শুক্রবার পুরানা পল্টনস্থ সংগঠনটির অস্থায়ী কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মানবাধিকার কমিশন ঢাকা কলেজ জোনের প্রতিনিধি শোয়াইব আহমাদের সভাপতিত্বে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জাতীয় পর্যায়ে কাজ করার নিমিত্তে সংগঠনটির নিবেদিত প্রাণ কর্মীদের নিয়ে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়। উপস্থিত সকলের সমর্থনের ভিত্তিতে কাজী আখতারুজ্জামানকে সভাপতি ও জি এম সানাউল্লাহকে সাধারন সম্পাদক করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষনা করা করা হয়। কমিটির অন্যান্য পদে রয়েছেন সহ সভাপতি-১ আব্দুল্লাহ মামুন, সহ সভাপতি-২ শুয়াইব আহমাদ, সহ সভাপতি-৩ বশির ইবনে জাফর, যুগ্ম সম্পাদক-১ শাহরিয়ার ইমরান, যুগ্ম সম্পাদক-২ আরমান হুসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক হুজাইফ আমিন, সহকারী সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুব হাসান ইমন, অর্থ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান বাঙ্গালী, সহকারী অর্থ সম্পাদক মোবারক হুসাইন, দফতর সম্পাদক হাম্মাদ বিন মোশারফ, সহকারী দফতর সাইফ মোহাম্মদ সালাহ উদ্দীন, তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আরিফ বিল্লাহ, সহকারী তথ্য বিষয়ক সম্পাদক-১ মোহাঃ জুনাইদ, সহকারী তথ্য বিষয়ক সম্পাদক-২ মোহাঃ মোরছালিন, প্রচার সম্পাদক মাহবুব নাহিয়ান, সহকারী প্রচার সম্পাদক-১ আশিকুর রহমান, সহকারী প্রচার সম্পাদক-২ হেদায়েতুল্লাহ বিন হাবীব, সহকারী প্রচার সম্পাদক-৩ ওমায়ের আল ফারহান, মিডিয়া পরিচালক নকীব মুহাম্মাদ হাবীবুল্লাহ, সহকারী মিডিয়া পরিচালক-১ মোহাঃ হুজাইফা, সহকারী মিডিয়া পরিচালক-২ মোহাঃ ইবরাহীম, সদস্য-১ মামুনুর রশীদ, সদস্য-২ মোহাঃ ইয়াকুব

সভায় সভাপতির বক্তব্যে মানবাধিকার কমিশন ঢাকা কলেজ জোনের প্রতিনিধি শোয়াইব আহমাদ বলেন, বাংলাদেশের মৌলিক মানবাধিকার পরিস্থিতি খুবই নাজুক। প্রতিদিন পত্রিকার পাতা উল্টালে এবং টেলিভিশনের খবর দেখলে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি বুঝতে কারো একটুও কষ্ট হবার কথা নয়। গুম-হত্যা, সন্ত্রাস, রাহাজানি, সংবাদপত্রের বাকস্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ এসব ঘটনার মাধ্যমেই বুঝা যায় দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি কতটুকু অবনতি হয়েছে। আজ আমরা মানবাধিকার কর্মীরাও একশ্রেণী মানুষের হাতে কুক্ষিগত হয়ে যাচ্ছি। যারা মানুষকে মুক্ত চিন্তা, বাক ও বিবেকের স্বাধীনতা নিয়ে মুখে ফেনা তুলেছেন, তারাই আবার ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করার জন্য মুক্ত চিন্তা ও বাক স্বাধীনতা হরণ করেছেন। গণতন্ত্র, আইনের শাসনকে তারা গলাটিপে হত্যা করেছেন। কাজেই দেশের জনগণের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় এ সংগঠনটি মাইলফলক হিসেব কাজ করবে। আমি অবাকের গতিময় পথ চলার প্রত্যাশা করি।

Related posts